দৃষ্টি শক্তি হারাতে বসেছে বিয়ানীবাজারের মাহদি!

0
121

সিলেটের সংবাদ ডটকম: শিক্ষকের বেত্রাঘাতে সিলেটের বিয়ানীবাজার পিএইচজি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ট শ্রেণীর ছাত্র মাহদি রহমানের বাম চোখে বুধবার অপারেশন হয়েছে।

এদিকে, বেত্রাঘাতকারী বিদ্যালয়ের ইসলাম শিক্ষা বিষয়ের শিক্ষক আবু সুফিয়ান সাময়িক বরখাস্ত(সাসপেন্ড) করা হয়েছে।

এ ঘটনায় বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক আব্দুল হেকিমকে প্রধান করে বুধবার ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল হাছিব জীবন শিক্ষককে সাসপেন্ড ও তদন্ত কমিটি গঠনের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, তদন্ত কমিটিতে বিদ্যালয়ের শিক্ষক আব্দুল হাই ও তমাল সেন এবং অভিভাবক প্রতিনিধি হাবিবুর রহমান ও সেলিম উদ্দিনকে রাখা হয়েছে। কমিটি শিগগিরই তাদেরকে রিপোর্ট দেবে।

আক্রান্ত ছাত্রটি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে বলে জানান তিনি। অসাবধানতাবশত এ ঘটনা ঘটেছে বলে জানান তিনি। বিদ্যালয় সূত্র জানায়, বিদ্যালয়ের ইসলাম শিক্ষা বিষয়ের শিক্ষক আবু সুফিয়ান শ্রেণিকক্ষে পাঠদানে অমনোযোগী এক শিক্ষার্থীকে গত মঙ্গলবার বেত্রাঘাত করেন।

এ সময় পাশে থাকা শিক্ষার্থী মাহদি হোসেনের বাম চোখে গিয়ে বেতের আঘাত পড়ে। সাথে সাথে তার চোখ থেকে রক্ত ঝরতে থাকলে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে কর্তব্যরত চিকিৎসকের পরামর্শে তাকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

মাহদি পৗর এলাকার শ্রীধরা গ্রামের আতিক হোসেনের পুত্র। তার বাবা সবজি ব্যবসায়ী বলে জানা গেছে। মাহদীর নানা আবুল হোসেন ও তার প্রতিবেশী জাবেদ আহমদ জয় গতরাতে জানান, আক্রান্ত চোখে বুধবার চিকিৎসকরা অপারেশন করেছেন।

চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে তারা জানান, চিকিৎসকরা মাহদীকে উন্নত চিকিৎসা করাতে বলেছেন। তা না হলে তার চোখের দৃষ্টি শক্তি ফিরে নাও পেতে পারে বলে চিকিৎসকরা আশংকা প্রকাশ করেছেন। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকসহ সংশ্লিষ্টরা গতকাল মেহদীকে ওসমানী হাসপাতালে দেখে এসেছেন বলে তারা জানান।

(Visited 1 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here