বল ট্যাম্পারিংকাণ্ডে সরে দাঁড়ালেন স্মিথ-ওয়ার্নার

0
125

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: আগের দিন বল ট্যাম্পারিং করে আলোচনার জন্ম দেন ক্যামেরন ব্যানক্রফট।

কেউটাউনে চলমান দক্ষিণ আফ্রিকা-অস্ট্রেলিয়া সিরিজে আর সব ছাপিয়ে তাই এই বিষয়টিই বড় হয়ে দাঁড়ায়।

পরে সংবাদ সম্মেলনে অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ বল ট্যাম্বারিংয়ে নিজেদের জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেন। এমন অবস্থায় অস্ট্রেলিয় সরকার স্মিথকে অধিনায়কত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়ার নির্দেশও দিয়েছিলেন।

কেপ টাউনের চতুর্থ দিন নিজের রাজ্য বিসর্জন দিয়েই অবশ্য মাঠে নেমেছে স্মিথ। নেতৃত্ব থেকে নিজেই সরে দাঁড়িয়েছেন স্মিথ। সহ-অধিনায়কের পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন ডেভিড ওয়ার্নারও। স্মিথের পরিবর্তে কেপ টাউনে শেষ ‍দুই দিন অস্ট্রেলিয়াকে নেতৃত্ব দেবেন টিম পেইন।

কেপ টাউনে চার ম্যাচ সিরিজের তৃতীয় টেস্টের তৃতীয় দিনের ঘটনা। ক্যামেরন ব্যানক্রফট হলুদ রঙের কিছু একটা দিয়ে বল ঘসছিলেন এবং এক পর্যায়ে সেটি তার ট্রাউজারে লুকিয়ে ফেলেন। টেলিভিশন ক্যামারায় ধরা পড়েছে এর সবটা। অনফিল্ড আম্পায়াদের চোখে সন্দেহজনক কিছু ধরা পড়ার সাথে সাথে খেলা থামিয়ে ব্যানক্রফটের কাছে সে বিষয়ে জানতে চান।

মাঠে বিষয়টি স্বীকার না করলেও পরে ঠিকই তা স্বীকার করেছেন। সংবাদ সম্মেলনে এসে অধিনায়ক স্মিথ জানিয়েছেন, সিনিয়র ক্রিকেটাররাও যুক্ত এই পরিকল্পনার সঙ্গে। বল ট্যাম্পারিং বরাবরই ক্রিকেটে স্পর্শকারত ইস্যু। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া থেকে দেশটির সরকারও তাই বড় চটেছেন এই ঘটনায়।

রোববার ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার প্রধান নির্বাহী জেমস সাদারল্যান্ড জানান, ‘স্টিভ স্মিথ এবং ডেভিড ওর্য়ারের সঙ্গে আলোচনার পর তারা এই টেস্টে অধিনায়ক ও সহ-অধিনায়কের পদ থেকে সরে দাঁড়াতে রাজি হয়েছেন।’ দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্টটির চতুর্থ দিনের খেলা এখন মাঠে গড়িয়েছে।

সাদারল্যান্ড আরো বলেন, ‘আমি আগেই বলেছিলাম, ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া এবং অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট অনুরাগীরা যারা আমাদের দেশকে প্রতিনিধিত্ব করে তাদের কাছ থেকে নির্দিষ্ট মানদণ্ড আশা করে। এবং এই ঘটনায় সেই মান বজায় থাকেনি। আমাদের মতো সব অস্ট্রেলিয়ানরা এর উত্তর চায় এবং আমরা আমাদের তদন্তে সবসময় আপডেট জানিয়ে যাবো। সেটা অগ্রাধিকার ভিত্তিতে।

(Visited 6 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here