এবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ব্যঙ্গ করে ফেসবুকে কবিতা লিখছেন কয়েস

0
779

সিলেটের সংবাদ ডটকম: সিলেটে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ব্যঙ্গ করে কবিতা লিখে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পোষ্ট দিয়ে যাচ্ছেন প্রতারনামুলক প্রতিষ্ঠান স্বপ্নতরীর তথাকথিত চেয়ারম্যান, গরীবদের টাকা আত্মসাৎকারি শিবগঞ্জ সোনার পাড়া (ছাপরবন্ধপাড়া)’র নবারুন ১৪২/১ নং বাসার নুর উদ্দিনের ছেলে ফয়েজ-উল-কয়েস।তার ফেসবুক আইডিতে গিয়ে দেখা যায়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ব্যঙ্গ করে কয়েকটি কবিতা লিখেছেন তিনি যা বাংলাদেশ তথ্য প্রযুক্তি আইনে দন্ডনীয় অপরাধ।

অথচ তার সাথে চলাফেরা, তার ফেসবুক আইডিতে রয়েছের সিলেট আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগের অনেক বন্ধু। কয়েসের এমন পোষ্ট এসব বন্ধূরা দেখেও না দেখার মতো মনোভাব দেখানোকে অনেকে ভিন্ন চোখে দেখছেন।

একটি সুত্র থেকে জানা যায়, সিলেট জেলা ও মহানগর যুবলীগ, আওয়ামীলীগ ও ছাত্রলীগ পরিচয়দানকারি কয়েকজন নেতা এই ফয়েজ-উল-কয়েসের কাছ থেকে নিয়মিত চাঁদা গ্রহন করে থাকেন। যার কারনে এরা কোন প্রতিবাদ বা আইনী ব্যবস্হা নিতে পারছেন না।

আর সে কারনে প্রতারক ফয়েজ-উল-কয়েস তার ইচ্ছেমতো প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে খারাপ মন্তব্য করে কবিতা লিখছে। শুধু প্রধানমন্ত্রী নন সে অন্য আরো কয়েকজন মন্ত্রীকে নিয়েও খারাপ মন্তব্য করে কবিতা লিখে তার টাইমলাইনে পোষ্ট দিচ্ছে। এদিকে বর্তমান ডিজিটাল বাংলাদেশে ফয়েজ-উল-কয়েসের এসব পোষ্ট আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর চোখেও পড়ছেনা।

এসব ব্যাপারে জানতে সিলেট শাহপরান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আখথার হোসেনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, এসব অপরাধ ঠেকাতে কোন আইন আছে কিনা আমার জানা নেই।

তবে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনারের একজন কর্মকর্তার কাছে জানতে চাইলে তিন ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ২০১৮এর ২৯ ধারায় শাস্তির বিষয় উল্লেখ করে বলেন, ‘এই আইনের আওতায় কেউ যদি ডিজিটাল মাধ্যম ব্যবহার করে মানহানিকর কোনও পোষ্ট দেয় তাহলে তার বিরুদ্ধে তিন বছরের জেল ও পাঁচ লাখ টাকা জরিমানা বা উভয় দণ্ডের বিধান রাখা হয়েছে।

অথচ ফয়েজ-উল-কয়েস দিব্বি তার ফেসবুকের টাইমলাইনে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে মানহানিকর পোষ্ট আপলোড করে যাচ্ছে আর প্রশাসন রয়েছেন ঘুমে। আগামীতে পড়ুন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ব্যঙ্গ করে কয়েসের ফেসবুকে কবিতা লেখার নৈপথ্যে কারা           

(Visited 26 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here