বোনের ইজ্জ্বত রক্ষা করতে গিয়ে ভাই আহত : দুই বখাটে গ্রেফতার

0
279

সিলেটের সংবাদ ডটকম: কানাইঘাটে বোনের উক্ত্যাক্তকারী বখাটেদের হামলায় জুবের আহমদ নামের এক যুবক রক্তাক্ত আহত হয়েছে। এ ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার রাত সাড়ে ৯টায় উপজেলার লক্ষীপ্রসাদ পুর্ব ইউপির ভাল্লুকমারা গ্রামে।

জানা যায় ঐ ইউপির এরালিগুল গ্রাম থেকে কয়েক বছর পুর্বে ফয়জুল হকের পুত্র জুবের আহমদ ভাল্লুকমারা গ্রামে নিজস্ব বাড়িঘর করে তার পরিবার নিয়ে বসবাস করছেন।

এতে ঐ এলাকার চিহিৃত তিন বখাটের নজর পড়ে তার মাদ্রাসা পড়ুয়া ছোট বোনের দিকে। তারা তাকে দীর্ঘ দিন থেকে উত্তেক্ত করে আসছে। অষ্টম শ্রেণীতে উত্তীর্ণ হওয়ার পর এক পর্যায় এদের ভয়ে সে লেখাপড়া ছেড়ে দিয়েছে বলে জানিয়েছে তার ছোট বোনটি। তারপরও মেয়েটির পিছন ছাড়েনি ঐ বখাটেরা।

তারা গত বুধবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে সুযোগ বুঝে ঐ মেয়েটির বাড়িতে এসে তাদের বসত ঘরে ঢুকার চেষ্টা করে। এতে বসত ঘরের লোকজন চিৎকার দিলে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে বখাটেরা পিছবা হয়নি। তারা ঐ মেয়েটিকে সেখান থেকে নিয়ে যাবেন বলে আগত লোকদের জানিয়ে দেয়।

এক পর্যায় মেয়েটির ভাই জুবের আহমদ ফোন পেয়ে বাজার থেকে দৌড়ে বাড়িতে আসলে স্থানীয় লোকদের সহযোগীতায় এ ঘটনার সূষ্ট সমাধানের জন্য গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য নুর উদ্দিনের বাড়িতে যাওয়ার জন্য বখাটেদের অনুরুদ জানানো হয়। বোনের ইজ্জ্বত রক্ষার্থে অস্ত্রধারী বখাটেদের কাছে ভাইয়ের আকুতি মিনতির পিড়াপিড়িতে এক পর্যায় বখাটেরা উত্তেজিত হয়ে ধারালো ছোরা দিয়ে তাকে কুপিয়ে পালিয়ে যায়।

পরে আহত জুবের আহমদকে স্থানীয়রা সেখান থেকে উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী হাসপাতালের সিসিইউতে ভর্তি করে। এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত তার জ্ঞান ফিরেনি বলে জানিয়েছেন তার আত্মীয় মুহাম্মদ আলী। রাতের অন্ধকারে দুর্গম পাহাড়ী এলাকার মানুষের উপস্থিতিতে এমন ঘটনায় এলাকায় ক্ষোভ বিরাজ করছে।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার ঐ কিশোরী বাদী হয়ে কানাইঘাট থানায় মামলা দায়ের করেছে। তবে এমন নিলজ্জ মর্মান্তিক ঘটনার সাথে সাথে ঐ রাতেই পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। এবং আসামী বখাটেদের গ্রেফতার করতে রাত ভর উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান দেয়।

এক পর্যায় রাত সাড়ে ৩টায় ভাউরভাগ চতুর্থখন্ড গ্রামের আব্দুল মতিনের বাড়ি থেকে ভাল্লুকমারা গ্রামের মৃত সালেক আহমদের পুত্র ঘটনার মুল নায়ক বখাটে আমিন উদ্দিন ও শরীফ উদ্দিনের পুত্র এখলাছ উদ্দিনকে গ্রেফতার করেছে। তবে মুল হোতাদের পুলিশ সাথে সাথে গ্রেফতার করায় এলাকার মানুষের মাঝে স্বস্তি ফিরে এসেছে।

এ ব্যাপারে কানাইঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আব্দুল আহাদ জানান মুল হোতাদের গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি বখাটেদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে। আহত জুবের আহমদকে থানা পুলিশের পক্ষ থেকে সব ধরনের চিকিৎসার খোজ খবর নেওয়া হচ্ছে।

(Visited 15 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here