সিলেটে বালুমহাল ইজারায় অনিয়ম-কারচুপির অভিযোগ

0
117

সিলেটের সংবাদ ডটকম: সিলেট জেলার বালুমহাল ইজারায় অনিয়ম ও সুক্ষ্মকারচুপির অভিযোগ পাওয়া গেছে। এর মাধ্যমে সরকারের কোটি কোটি টাকার রাজস্ব ফাঁকি দেয়া হচ্ছে।

সিলেটের জেলা প্রশাসক ও সিলেটের বিভাগীয় কমিশনারের কাছে দেয়া পৃথক অভিযোগ থেকে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

জানা গেছে, গত ২৪ এপ্রিল সিলেট জেলার ৩৫টি বালুমহালের ইজারা বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয় জেলা প্রশাসকের নেতৃত্বাধীন সিলেট জেলা বালুমহাল ব্যবস্থাপনা কমিটি।

এ কমিটি বিভিন্ন সিদ্ধান্তে হাইকোর্টের একাধিক রিট মোকদ্দমার আদেশের অপব্যাখ্যা দিয়ে বালুমহাল ইজারা প্রদান এবং কোনটি ইজারা প্রদান থেকে বিরত রাখা হয়েছে। আবার দেখা গেছে কোন কোন মহালের সর্বোচ্চ দরদাতাকে কৌশলে পাশ কাটিয়ে এর অর্ধেকমূল্যে ইজারা প্রদানের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

সূত্রে প্রকাশ, জেলার সুরমা নদী নিজদলইকান্দি (ক্রমিক-০৪)  বালুমহালের ইজারার বিরুদ্ধে হাইকোর্টে পৃথক রিট চলমান রয়েছে। এ অবস্থায় একটি রিটের ১২ এপ্রিল ২০১৮ তারিখের আদেশ গোপন রেখে ইজারা প্রদানের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। সুরমা নদী রাজাগঞ্জ বালুমহালের (ক্রমিক-০৫) ইজারার ব্যাপারে মহামান্য হাইকোর্টের ৪৬৮২/২০১৮ নং রিটে দেয়া ৫ এপ্রিল. ২০১৮ তারিখের আদেশের অপব্যাখ্যা করে সরকারী কৌশলীর মতামতের জন্য তা প্রেরণ করা হয়।

এতে করে সরকার ২৫ লাখ ১০ হাজার টাকার রাজস্ব প্রাপ্তি থেকে বঞ্চিত হয়েছে। বিয়ানীবাজারের আঙ্গুরা মোহাম্মদপুর বালুমহাল (ক্রমিক-০৬) বিষয়ে হাইকোর্টের দায়েরী রিটে (নং-৫৬৬১/২০১৮) ইজারা প্রদানের উপর কোন নিষেধাজ্ঞা নেই। তা’ সত্বেও রিটের ১৫এপ্রিল ২০১৮ তারিখের আদেশের অপব্যাখ্যা করে এর বিরুদ্ধে লিভ টু আপীলের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

এতে করে সরকার ১৯ লাখ টাকা রাজস্ব প্রাপ্তি থেকে বঞ্চিত হয়েছে। বিয়ানীবাজারের নয়াদুভাগ বালুমহালের (ক্রমিক-০৯) ইজারা প্রদানে সুক্ষ্মকৌশলের আশ্রয় নিয়ে ১৬ লাখ টাকার পরিবর্তে সাড়ে ৮,লাখ টাকায় ইজারা প্রদান করা হয়। এতে করে সরকারের সাড়ে ৭ লাখ টাকার রাজস্ব ফাঁকি দেয়া হয়েছে।

সুরমা নদী হাতিমনগর বালুমহালটি ১৪২২ বাংলা সন থেকে দীর্ঘ ৪বছর ধরে ৯কোটি ২৪ লাখ টাকার রাজস্ব না দিয়ে বেআইনীভাবে ভোগদখল করছেন একজন ইজারাদার।

বকেয়া রাজস্ব আদায় না করেই মহালটি ওই ভোগকারীকে ১৪২৫বাংলা সনের জন্য দখলদেহী প্রদানের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। জেলার বালুমহালগুলোর ইজারা প্রদান করা ও না করার ব্যাপারে কোন কোনটিতে মহামান্য হাইকোর্টের রিট মামলার আদেশের অপব্যাখ্যা করে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে এবং কোন কোনটিতে কৌশলে ৫০% রাজস্ব ফাঁকি দেয়া হয়েছে।

এতে করে সরকার চলতি বছরে প্রায় ২০ কোটি টাকার রাজস্ব প্রাপ্তি থেকে বঞ্চিত হচ্ছে বলে অভিযোগ রয়েছে। সিলেট জেলা প্রশাসকের ডেসপাস শাখা রোববার (৬মে) জেলা প্রশাসক বরাবরে দেয়া লিখিত অভিযোগ প্রাপ্তির সত্যতা নিশ্চিত করেছে।

(Visited 6 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here