গোলাপগঞ্জে বাগলাবাজার-সুপাটেক সড়ক নিশ্চিহ্ন প্রায়

0
117

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: গোলাপগঞ্জের বাদেপাশা ইউনিয়নের বাগলাবাজার-সুপাটেক সড়কের প্রায় সাড়ে ৭ কিলোমিটারের মতো রাস্তার অস্তিত্ব নিশ্চিহ্ন হয়ে গেছে।

দীর্ঘ ২০ বছরেও সড়কটির সংস্কার না হওয়ায় যানবাহন চলাচলে অযোগ্য হয়ে পড়েছে। পুরো রাস্তা জুড়ে সৃষ্টি হয়েছে ছোট-বড় অসংখ্য গর্তের। মূল মাটির সাথে মিশে গেছে সড়ক।

রাস্তার দুইধার ভেঙে গিয়ে সরু হয়ে যাওয়ায় দুর্ঘটনা নিত্য দিনের বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। ছোট ছোট যানবাহন একবার গর্তে পড়ে গেলে ৭/৮ জন মিলে টেনে তুলতে হয়। এলাকার শান্তিরবাজারে প্রতিদিন হাজার হাজার লোক চলাচল করেন।

এ ছাড়া রাউকারবাজার, ডেপুটিবাজার, বাগলাবাজার যেতেও এ সড়কটি ব্যবহার করা হয়। জনগুরুত্বপূর্ণ রাস্তাটির বেহাল দশা হলেও কর্তাব্যক্তিদের নজরে আসছে না। সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, যেন কোনো কালেই রাস্তাটি পাকা ছিলনা। যেটুকুই পাকা দেখা গেছে সেখানেও দীর্ঘদিন ধরে রাস্তাটির কার্পেটিং উঠে গিয়ে প্রায় পুরো রাস্তা জুড়ে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে।

ভারি বর্ষণে অধিকাংশ রাস্তার এখন বেহাল অবস্থা। একটু বৃষ্টি হলেই রাস্তায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। ফলে চরম দুর্ভোগে পড়েন এলাকাবাসী। এলাকাবাসীর অভিযোগ- গত ১৯৯৬-২০০১ সালের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের শাসনামলে সড়কটি সংস্কার হলেও এরপর আর কোনো কাজ হয়নি।

এক সময় কার্পেটিং থাকলেও এখন আর কোথায়ও তা নেই। সড়কের পাশে খাল থাকার কারণে বেশির ভাগই ভেঙ্গে গেছে। আর যতটুকু বাকী রয়েছে তাতে সৃষ্টি হয়েছে ছোট বড় অসংখ্য গর্ত। উপজেলার অন্যান্য এলাকায় উন্নয়ন কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন হলেও এখানে উন্নয়নের তেমন ছোঁয়া লাগেনি।

এলাকাবাসীর দাবি, দশ গ্রামের হাজার মানুষ ব্যবহার করলেও স্থানীয় জনপ্রতিনিধি এমনকি মন্ত্রীর এদিকে নজর নেই। একাধিকবার আশ্বাস দিলেও কাজ হয়নি। দিনদিন সড়কটি মাটির সাথে মিশে যাচ্ছে। এলাকার সাবেক ইউনিয়ন সদস্য, মুক্তিযোদ্ধা নর্মদা কান্ত দাস বলেন, এ সড়ক দুটি উচ্চবিদ্যালয় ও তিনটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা যাতায়াত করেন।

এ অবস্থায় তাদের অনেক দুর্ভোগ পোহাতে হয়। তিনি দ্রুত রাস্তাটি সংস্কারের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি অনুরোধ জানান। পথচারী বাবুল আহমদ বলেন, এই রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন সরকারের পদস্থ কর্মকর্তারাও যাতায়াত করেন, কিন্তু রাস্তার বেহাল দশা তাদের নজরে পড়ে না। বাদেপাশা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোস্তাক আহমদ বলেন, শান্তির বাজার থেকে সুপাটেক পর্যন্ত রাস্তার ঢালাইয়ের কাজ প্রক্রিয়াধীন। বাদেপাশা রাস্তার কাজ আপাতত হচ্ছ না।

(Visited 279 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here