সিলেটসহ সারাদেশের ২০২টি মাদ্রাসা বন্ধ!

0
57

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: শিক্ষার্থী না পাওয়াসহ নানা অভিযোগে সিলেটের একটিসহ সারাদেশের ২০২টি মাদ্রাসা বন্ধ করে দিয়েছে ‘বাংলাদেশ মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড।

এছাড়া, আরো ৯৬টি মাদ্রাসায় চলতি বছরের দাখিল পরীক্ষায় কোনো শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ বা পাস করতে না পারায় তাদের কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে।

তাদের জবাব পাওয়ার পরপরই তাদের বিরুদ্ধেও অনুরূপ ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানা গেছে। গতকাল বিকেলে মাদারাসা বোর্ডের নিজস্ব ওয়েবসাইটে ২০২টি মাদ্রাসা বন্ধে ব্যাপারে একটি নোটিশও দেয়া হয়েছে। বন্ধ করার ব্যাখ্যায় বোর্ড বলেছে, ‘এসব মাদ্রাসায় থেকে ২০১৭ ও ২০১৮ সালের দাখিল পাবলিক পরীক্ষায় কোনো শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেনি।

এর কারণ জানতে চেয়ে এসব মাদ্রাসাপ্রধানকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হলে অনেকেই এর জবাব দেননি, যারা জবাব দিয়েছে তাতে বোর্ড সন্তুষ্ট হতে পারেনি। এ কারণে এসব মাদ্রাসার অনুমতি ও অ্যাকাডেমিক স্বীকৃতি বাতিলসহ অনলাইনে পাসওয়ার্ড, মাদ্রাসা কোড নম্বর ও ইআইআইএন নম্বর বন্ধ করে দেয়া হলো।

মাদ্রাসা বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, বন্ধ হওয়ার মাদ্রাসার মধ্যে বাগেরহাটে চারটি, বড়গুনা পাঁচটি, বরিশালে দু’টি, ভোলায় ছয়টি, বগুড়ায় চারটি, বাহ্মহ্মণবাড়িয়ায় একটি, চাঁদপুরে একটি, চাঁপাইনবাবগঞ্জে দু’টি, চট্টগ্রামে একটি, কুমিল্লায় তিনটি, দিনাজপুরে ১৯টি, গাইবান্ধা ১২টি, যশোর ৫টি, ঝিনাইদহে ১টি, জয়পুরহাটে ২টি, খাগড়াছড়ি ১টি, খুলনা ৪টি, কিশোরগঞ্জে ১টি, কুড়িগ্রামে ১টি, কুষ্টিয়ায় ৩টি, লালমনিরহাটে ৫টি, মেহেরপুরে ১টি, ময়মনসিংহে ৪টি, নওঁগা ১টি, নাটোরে ১১টি, নড়াইলে ১টি, নেত্রকোনায় ১টি, নীলফামারিতে ৩টি, নোয়াখালীতে ১টি, পাবনা জেলায় ৫টি, পঞ্চগড়ে ৭টি, পটুয়াখালীতে ৭টি, রাজবাড়িতে ২টি, রাজশাহীতে ১১টি, রংপুরে ৯টি, সাতক্ষীরায় ৫টি, সিরাজগঞ্জে ১০টি, সিলেটে ১টি এবং ঠাকুরগাঁওয়ে ২৬টি।

এসব মাদ্রাসায় এখন ইউএনও’র মাধ্যমে বোর্ডে আবেদন করার পর পুনরায় শিক্ষাকার্যক্রম চালু করার অনুমতি পেতে পারে বলে বোর্ড সূত্রে জানা গেছে। অন্যথায় তাদের শিক্ষাকার্যক্রম বন্ধ থাকবে। শিক্ষার্থী ভর্তিরও কোনো সুযোগ থাকবে না। এছাড়া, এ বছর দাখিল পরীক্ষায় মাদ্রাসা বোর্ডের শতভাগ ফেল করা ৯৬টি প্রতিষ্ঠানকে গত ১৩ মে শোকজ নোটিশ ইস্যু করেছেন।

গত ২৩ মের মধ্যে তাদের কাছে এর জবাব চাওয়া হয়েছিল। এ পর্যন্ত প্রায় সব কয়টি প্রতিষ্ঠানটি এর জবাব দিয়েছে। বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, এসব জবাব যাচাই-বাছাই চলছে। জবাব সন্তোষজনক না হলে তাদের বিরুদ্ধেও একই ব্যবস্থা নেয়া হবে।

(Visited 190 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here