সিলেটের এক এমপিকে হত্যার চুক্তি নিয়েছিলেন ডা. জাহিদ

0
100

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: বৃহত্তর সিলেটের একজন সংসদ সদস্যকে হত্যার চুক্তি নিয়েছিলেন গ্রেফতার হওয়া অস্ত্র ব্যবসায়ী ডা. জাহিদুল আলম কাদির।

লন্ডন থেকে এই হত্যার পরিকল্পনা নেয়া হয়। জিজ্ঞাসাবাদে ডা. জাহিদুল আলম পুলিশকে এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম।

বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর মিন্টো রোডের ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে এক ব্রিফিংয়ে তিনি এ তথ্য দেন। মনিরুল ইসলাম বলেন, ডা. জাহিদুল আলম ২০০২ সালে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস পাস করেন। শখের বশে অবৈধ অস্ত্র সংগ্রহ শুরু করেন।

পরবর্তীতে সেই অস্ত্রের আকার-আকৃতি কিছুটা পরিবর্তন করে উচ্চ মূল্যে বিক্রি করতেন। তিনি বলেন, বিভিন্ন কিলিং মিশনেও এইসব অস্ত্র অর্থের বিনিময় ভাড়া দিতেন। এমন কি নিজেও সেই মিশনে অংশগ্রহণ করতেন বলে প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছে পুলিশ।

কোন দলের কোন সংসদ সদস্যকে হত্যার পরিকল্পনা করা হয় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মনিরুল ইসলাম জানান, গ্রেফতার জাহিদুল ও তার স্ত্রী মাসুমা আক্তারকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এখনও বিস্তারিত জানা যায়নি।

তবে পেশাদার কিলার হিসেবে বেশ কয়েক জায়গায় চুক্তিবদ্ধ হওয়ার পূর্বেই তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা। তিনি বলেন, জাহিদুলের সাথে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের সন্ত্রাসী ও পেশাদার খুনিদের সখ্য ছিল তা তদন্তে বেরিয়ে আসছে।

উল্লেখ্য, গত ১৫ মে ডা. জাহিদুল আলম কাদিরকে রাজধানীর যাত্রাবাড়ি এলাকা থেকে ২টি পিস্তল এবং ৮ রাউন্ড গুলিসহ গ্রেফতার করে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট। তারপর তাকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের পর ৩ জুন তার স্ত্রী মাসুমাকে গাবতলী থেকে ৪ রাউন্ড গুলি ও বিদেশি একটি পিস্তলসহ গ্রেফতার করা হয়।

স্ত্রীর দেয়া তথ্যের ভিত্তিতেই বেরিয়ে আসে ডা. জাহিদুলের অস্ত্রের ভাণ্ডারের তথ্য। দুই দফা রিমান্ডের পর তাদের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে বৃহস্পতিবার ভোরে জাহিদুলের ময়মনসিংহের বাগমারা এলাকার ফ্লাট থেকে বিপুল পরিমাণ আগ্নেয়াস্ত্র ও ১ হাজার ৬১০ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়।

উদ্ধারকরা অস্ত্রের মধ্যে পায়েন্ট টু টু (.২২) বোরের রাইফেল ৩টি, পয়েন্ট থ্রি জিরো থ্রি (.৩০৩) রাইফেল ১টি, পয়েন্ট থ্রি টু বোর রিভলবার ৪টি, পয়েন্ট টু টু (.২২) রিভলবার ১টি, সেভেন পয়েন্ট সিক্স ফাইভ (৭.৬৫) পিস্তল ১টি।

তাছাড়া পয়েন্ট থ্রি জিরো থ্রি রাইফেলের ১১০ রাউন্ড, পয়েন্ট টু টু রাইফেলের ১১০০ রাউন্ড, পয়েন্ট থ্রি টু রিভলবারের ৩৫৭ রাউন্ড ও পয়েন্ট টু ফাইভ পিস্তলের ৫৪ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়।

(Visited 259 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here