আজ থেকে শুরু রাশিয়া ফুটবল বিশ্বকাপ-২০১৮

0
122

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: আজ থেকে শুরু হতে যাচ্ছে বিশ্বের অন্যতম বৃহত্তম ক্রীড়া উৎসব ফুটবল বিশ্বকাপ-২০১৮। বাংলাদেশ সময় আজ রাতে পর্দা উঠছে ফিফা বিশ্বকাপ ফুটবলের ২১তম আসরের। .

এবারের বিশ্বকাপের আয়োজক স্নায়ুযুদ্ধকালীন বিশ্বের দুই পরাশক্রি এক শক্তি রাশিয়া। পরমাণু শক্তিধর এই দেশটি রঙিন বহুল প্রতীক্ষিত এ আয়োজন করতে সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে।

আজ থেকে শুরু হয়ে বিশ্বকাপের উন্মাদনা চলবে ১৫ জুলাই পর্যন্ত। উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হবে রাশিয়ার সবচেয়ে বড় ভেন্যু মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে। যেখানে প্রায় ৮০ হাজার মানুষের সামনে মঞ্চ মাতাবেন তারকারা। উদ্বোধনী ম্যাচ শুরুর ঘণ্টা দুই আগে বিশ্বকাপের থিম সং ‘লিভ ইট আপ’-এর মধ্যে দিয়ে শুরু হবে অনুষ্ঠান।

থিম সং নিয়ে সবার সামনে হাজির হবেন উইল স্মিথ ও নিকি জ্যাম। এছাড়া রাশিয়ান স্থানীয় তারকাদের নানা রকম আয়োজনে মাতবে পুরো গ্যালারি। অনুষ্ঠানের পাশাপাশি তুলে ধরা হবে রাশিয়ার সংস্কৃতির বিভিন্ন দিক। পুরো গ্যালারির সামনে জিমন্যাস্ট এবং ট্র্যামপোলিনিস্টরাও পারফর্ম করবেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পর স্বাগতিক রাশিয়া ও সৌদি আরবের ম্যাচ দিয়ে আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হবে এবারের বিশ্বকাপের। উদ্বোধনী ম্যাচে উপস্থিত থাকবেন বিশ্বের নামী-দামী সব তারকা থেকে শুরু করে গুরুত্বপূর্ণ অনেক ব্যক্তিত্ব। এই তালিকায় যোগ হতে পারেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও।

রাশিয়ান পার্লামেন্ট ক্রেমলিন থেকে জানা গেছে এই তথ্য। ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিট্টি পেসকভ জানিয়েছেন রাশিয়ান প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন সর্বোচ্চ চেষ্টা করছেন ট্রাম্পসহ যুক্তরাষ্ট্রের উচ্চপর্যায়ের নেতাদের উদ্বোধনী ম্যাচে রাখার জন্য। এ প্রসঙ্গে পেসকভ বলেন, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিন বলেছেন তিনি অনেক খুশি হবেন যদি আমন্ত্রণ পাওয়া সব অতিথিরা মস্কোয় উদ্বোধনী দিনে উপস্থিত থাকেন।

এই তালিকায় অবশ্যই যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পসহ উচ্চপর্যায়ের অন্যান্য নেতাও আছেন। সম্প্রতি সিঙ্গাপুরে দক্ষিণ কোরিয়ান প্রেসিডেন্ট কিম জং উনের সঙ্গে বৈঠক করেছেন ট্রাম্প। সংক্ষিপ্ত সফর শেষ করে এরই মধ্যে দেশেও ফিরে গেছেন বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাধর দেশের কর্ণধার।

শেষ পর্যন্ত ট্রাম্পকে উদ্বোধনী ম্যাচে দেখা গেলে সেটা ফুটবলের জন্যই মঙ্গলজনক হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। অবশ্য রাশিয়া বিশ্বকাপের মূলপর্বের টিকেট পেতে ব্যর্থ হয়েছে ডোনাল্ড ট্রাম্পের দেশ যুক্তরাষ্ট্র। এরপরও সরাসরি খেলা দেখার জন্য স্বাগতিক রাশিয়া বাদে সবচেয়ে বেশি টিকেট কেটেছে মার্কিন নাগরিকরা।

নিঃসন্দেহে বিশ্ব ক্রীড়াঙ্গনের সবচেয়ে বর্ণিল, আকর্ষণীয়, আকাঙ্ক্ষিত ও জনপ্রিয় আসর বিশ্বকাপ ফুটবল। একমাত্র এই মিলনমেলা দেশ, মহাদেশ, জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে সবাইকে এক কাতারে শামিল করতে সক্ষম। বিশ্বকাপ ফুটবল শুধু বিশ্ববৃহৎ ক্রীড়া উৎসবই নয়, এ হচ্ছে বিশ্বের অন্যতম সর্ববৃহৎ মিলনমেলা।

বর্ণ-ধর্ম নির্বিশেষে তাবত বিশ্বের বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধিরা অংশ নেয় এ আয়োজনে। বিচিত্র ভাষা, বিচিত্র পোশাক, আচার-আচরণ সবকিছুকে ছাপিয়ে এখানে উত্থিত হয় মিলনের সুর, ভালবাসা, ভাললাগার জয়গান। বিশ্ব ভ্রাতৃত্বের এই জয়গানে এবার মুখরিত হচ্ছে রাশিয়া। মাসব্যাপী বিশ্বকাপে সোনার ট্রফির জন্য লড়াই করবে ৩২টি দেশ।

এই দেশগুলো ছয়টি অঞ্চল থেকে বাছাইপর্ব পেরিয়ে মূলমঞ্চের টিকেট কেটেছে। বিভিন্ন অঞ্চল থেকে সুযোগ পাওয়া দেশের মধ্যে এএফসি (এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশন) ৫টি, কাফ (কনফেডারেশন অফ আফ্রিকান ফুটবল) ৫টি, কনকাকাফ (উত্তর, মধ্য আমেরিকা) ৩টি, কনমেবল (দক্ষিণ আমেরিকান ফুটবল কনফেডারেশন) ৫টি ও উয়েফা (ইউনিয়ন অফ ইউরোপিয়ান ফুটবল এ্যাসোসিয়েশন) ১৪টি দেশ।

ওএফসি (ওশেনিয়া ফুটবল কনফেডারেশন) থেকে কোন দেশ বিশ্বকাপের টিকেট পায়নি। এবারের বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন দল অর্থ পুরস্কার পাবে ৩ কোটি ৮০ লক্ষ মার্কিন ডলার। রানার্সআপ দল পাবে ২ কোটি ৮০ লক্ষ মার্কিন ডলার। সবমিলিয়ে ৪০ কোটি টাকার অর্থ পুরস্কার থাকছে। এবারের বিশ্বকাপে হট ফেবারিট রেকর্ড সর্বোচ্চ পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল।

বাছাইপর্বে সেরা অবস্থানে থেকে সবার আগে বিশ্বকাপ নিশ্চিত করেছে তারা। দ্বিতীয় স্থানে থাকা উরুগুয়ের থেকেও ১০ পয়েন্ট এগিয়ে বাছাইপর্ব শেষ করা সেলেসাওদের কাছেই টানা ২২ ম্যাচ অপরাজিত থাকার রেকর্ড হাতছাড়া হয় জার্মানির। বিশ্বকাপে ব্রাজিলের গ্রুপে আছে সুইজারল্যান্ড, সার্বিয়া ও কোস্টারিকা।

এছাড়া ফেবারিটের তকমা থাকছে আর্জেন্টিনা, জার্মানি, ফ্রান্স, স্পেন ও বেলজিয়ামের গায়ে। ইংল্যান্ডও এবার ভাল কিছু করতে পারে বলে ধারণা করছেন বিশেষজ্ঞরা। এছাড়া আন্ডারডগ হিসেবে এবার চমক দেখাতে পারে উরুগুয়ে ও ক্রোয়েশিয়া। পাশাপাশি সেনেগাল, মিসর, ডেনমার্ক, আইসল্যান্ড ও স্বাগতিক রাশিয়াও দেখাতে পারে চমক।

বিশ্বকাপে ৩২টি দেশ আট গ্রুপে বিভক্ত হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে। প্রতি গ্রুপ থেকে দু’টি করে দেশ প্রি-কোয়ার্টার (শেষ ষোলো) ফাইনালে উঠে আসবে। সেখান থেকে ধাপে ধাপে কোয়ার্টার ফাইনাল, সেমিফাইনালের পথ ধরে ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে। সূত্র: ডিএনএ

(Visited 28 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here