ওসমানীনগর-বালাগঞ্জে ৩০ হাজার মানুষ পানিবন্দি

0
51

সিলেটের সংবাদ ডটকম: উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে সিলেটের ওসমানীনগর ও বালাগঞ্জ উপজেলার নিন্মাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। কুশিয়ারা নদীর পানি বিপদ সীমার উপরে বইছে।

এদিকে, কুশিয়ারা ডাইক ভেঙ্গে নতুন নুতুন গ্রাম প্লাবিত হচ্ছে। শনিবার বিকাল থেকে বন্যার পানি বাড়তে থাকে। এদিকে, রবিবার সকালে কুশিয়ারা ডাইক ভেঙ্গে বালাগঞ্জ উপজেলার পূর্ব পৈলনপুর ও বালাগঞ্জ সদরে পানি ঢুকছে।

বালাগঞ্জ বাজারসহ বালাগঞ্জ উপজেলার প্রায় ১০টি গ্রাম নতুন করে বন্যায় আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এতে প্রায় ৩০ হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে আছে।  অন্যদিকে, সিলেট জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী ওসমানীনগর উপজেলা নিন্মাঞ্চলে বন্যাক্রন্ত গ্রাম পরিদর্শন করেন এবং বন্যায় পানি বন্ধিদের খোঁজ খবর নেন।

শনিবার দুপুরে কুশিয়ারা ডাইক ও প্লাবিত এলাকা পরিদর্শন করেন সিলেট পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী সিরাজুল ইসলাম, ওসমানীনগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মইনুল হক চৌধুরী, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আনিছুর রহমান। একাধিক সূত্রে জানা যায়, শনিবার রাতে সাদীপুর ইউপির সৈয়দপুর গ্রামের ডাইকের কালভার্ট ভেঙ্গে  ডাইকের বিভিন্ন স্থান দিয়ে পানি প্রবাহিত হয়ে একাধিক গ্রাম প্লাবিত হয়েছে।

গ্রাম গুলো হলো লামা তাজপুর, পূর্ব কালনিচর, উত্তর কালনিচর, দক্ষিণ কালনিচর, সৈয়দপুর, সুন্দিকলা, ইসলামপুর, সম্মানপুর, চাতলপাড়, রহমতপুর, পূর্ব তাজপুর ও নবীগঞ্জের গালিমপুর, মাধবপুর।  যে হারে পানি ঢুকছে তাতে শনিবার রাত বা রবিবার সকালের মধ্যে নতুন করে আরো কয়েকটি গ্রাম প্লাবিত হওযার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

উপজেলার পশ্চিম সাদীপুর  সহ পার্শ্ববর্তী কাতিয়া, ফেছিসহ নবীগঞ্জ ও জগন্নাথপুরের সাথে যোগাযোগের সব কটি সড়ক পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় প্রায় শতাধিক গ্রামের মানুষ মানুষের সরাসরি সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে।

ওসমানীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আনিছুর রহমান বলেন, ভেঙ্গে যাওয়া ডাইকের এলাকা পরিদর্শন করেছি। পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলীকে ডাইক মেরামতের জন্য প্রয়োজনী ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ করেছি।

(Visited 60 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here