কমলগঞ্জে দাদন ব্যবসায়ীর হাতে বিধবা লাঞ্চিত

0
76

সিলেটের সংবাদ ডটকম: মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার আদমপুর ইউনিয়নস্থ হোমেরজান গ্রামের বিধবা অসহায় লেইমা দেবীকে দাদনের টাকার জন্য নিজ বসত বাড়ির উঠানে ফেলে পা দিয়ে লাথি, কিলঘুষি মেরে নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

নির্যাতনকারী দাদন ব্যবসায়ীর নাম সুনীমল সিংহ। সে একই গ্রামের বাসিন্দা। আহত লেইমা দেবী কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে চিকিৎসা শেষে আজ বিকেলে তার ছোট মেয়ে আদমপুর বাজারস্থ সুমি দেবীর বাড়ীতে অবস্থান করছে। ঘটনাটি গত ১৮জুন সোমবার সকাল ১১ টায় হোমেরজান গ্রামে ঘটেছে।

এদিকে একটি প্রভাবশালী মহল সামাজিক ভাবে বিষযটি সমাধানের চেষ্টা চালাচ্ছে বলে জানা গেছে।জানা যায়, আদমপুর ইউনিয়নের হোমেরজান গ্রামের লেইমা দেবীর স্বামী অনেক আগে মারা যান। কোন ছেলে সন্তান নেই। তবে তিনটি মেয়ে ছিল। ইতি মধ্যে লেইমা দেবী সব মেয়ের বিয়ে দিয়েছেন।

তিনি একাই মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে কাজ করে সংসার চালান। কোন মতে সংসার চলছে। কমলগঞ্জ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বিধাব আহত লেইমা দেবী জানান, বছর খানেক আগে তার ছোট মেয়ে লইদাম দেবী বিয়ে হয়। বিয়ে উপলক্ষে তার অজান্তে বড় মেয়ে অঞ্জলী দেবী এলাকার দাদন ব্যবসায়ী সুনিমল সিংহের নিকট হতে কিছু টাকা ধার আনে।

বিয়ের কয়েক মাস পরে সুনিমল সিংহ বাড়িতে এসে টাকা পরিশোধের জন্য বলেন। লেইমা দেবী মেয়ের সাথে কথা বলে বা জায়গা বিক্রি করে টাকা দিবেন বলে জানান। পরবর্তীতে কিছু টাকা পরিশোধ করেন। কিন্তু দাদন ব্যবসায়ী প্রায় বাড়িতে এসেছে টাকার জন্য চাপ প্রয়োগ করতে থাকে।

আহত লেইমা দেবী বলেন, তিনি বিভিন্ন মানুষের সহযোগীতায় আওলাদ করা মুল টাকা পরিশোধ করেছেন। গত সোমবার সকালে সুনিমল সিংহ বাড়িতে এসেছে টাকা চাইলে বিধাব লেইমা দেবী দিতে পারবেন না বলে জানালে তাকে চুল ধরে ঘর হতে বের করে বাড়ির উঠানে ফেলে পা দিয়ে লাথি, হাত দিয়ে কিল ঘুষি মেয়ে নির্যাতন করে।

আহত বিধাব লেইমা দেবীকে তার মেয়ে সুমী দেবী রাতে কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করান। মেয়ে সুমী দেবী জানান, এর আগে আরও কয়েকবার তার মাকে সুনিমল দেবী মারধোর করে। এলাকার গন্যমান্যকে জানালেও কোন বিচার পাননি।

কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত ডাক্তার জানান, লেইমা দেবীর শরীরে আঘাত রয়েছে। তাকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। এদিকে এলাকার একটি প্রভাবশালী মহল দাদন ব্যবসায়ীকে বাচাঁনোর জন্য সামাজিক ভাবে সমাধান করার চেষ্টা করছে বলে জানা গেছে। দাদন ব্যবসায়ী নির্যাতনকারী সুনিমল সিংহের সাথে যোগাযোগ করলে মোঠাফোন (০১৭৮৬২৫০০৫১) বন্ধ পাওয়া যায়।

(Visited 57 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here