২৭ জুলাই যে কারণে চাঁদকে লাল দেখা যাবে

0
114

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: প্রায় প্রতিবছরই রহস্যময় চাঁদ-চাঁদোয়ার বাহারে বিশ্ববাসীর নজর কাড়ে।

ব্লু মুন, ব্ল্যাক মুন, স্ট্রবেরি মুন, হারভেস্ট মুন, এপিজে মুন, ব্লাড মুন কিংবা লুনার মুন, নানা নামে চাঁদ তার সৌন্দর্যের মহিমা ছড়ায়। এই মাসে পৃথিবীর আকাশে দেখা যাবে ২১ শতকের দীর্ঘতম লুনার মুন বা লাল চন্দ্রগ্রাস।

‘লাল শাড়ি পরে আকাশে উঁকি দেয় চাঁদের বুড়ি’ এর নামই লুনার মুন। ২৭ জুলাই পৃথিবীর ছায়ায় রক্তিম আভা পাবে চাঁদ। পৃথিবীর বায়ুমন্ডলে সূর্যরশ্মি বিচ্ছুরিত হওয়ার সময় নীল আলো শোষিত হয়ে অবশিষ্ট লালাভ অংশ চাঁদকেও কিছুটা লাল রঙে রাঙায়। তাই একে রঙিন দেখায়।

‘সুপার ব্লাড মুন’ কথাটি এসেছে এখান থেকেই। টানা ১ ঘণ্টা ৮৩ মিনিট ধরে এই চন্দ্রগ্রাস স্পষ্টভাবে দেখা যাবে। তবে এটি থাকবে ৩ ঘণ্টা ৫৫ মিনিট পর্যন্ত। দেখা যাবে কেবলমাত্র পূর্ব গোলার্ধ থেকে। ইউরোপ, এশিয়া, আফ্রিকা, অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের অধিবাসীরা এই পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ দেখতে পাবেন।

এশিয়া, অস্ট্রেলিয়া ও ইন্দোনেশিয়ায় চন্দ্রগ্রহণ সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে দিনের বেলায়। ইউরোপ ও আফ্রিকায় চন্দ্র্র্রগ্রহণ সন্ধ্যাবেলায় দেখা যাবে। সেই সঙ্গে, ১২ জুলাই এবং ১১ আগস্ট দুইটি সূর্যগ্রহণ দেখবে বিশ্ব। অস্ট্রেলিয়া, ইউরোপ এবং এশিয়ার কিছু অংশ থেকে এই সূর্যগ্রহণ দেখা যাবে। এর আগে ৩১ জানুয়ারি দেখা গিয়েছিল সুপার ব্লাড মুন বা নীল চন্দ্র্রগ্রাস।

উল্লেখ্য, ১৯৮২ সালে একই সঙ্গে সুপার ব্লাড মুন ও চন্দ্রগ্রহণ দেখা গিয়েছিল। ২৭ জুলাইয়ের পর এই বিরল চন্দ্রগ্রহণ দেখা যাবে ২০৩৩ সালে। নিউইয়র্ক টাইমস

(Visited 178 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here