ভারতে ফিরছেন জাকির নায়েক

0
68

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: জঙ্গিবাদে অর্থায়ন-উস্কানি ও অর্থপাচারের মামলায় মালয়েশিয়ায় পলাতক ভারতের বিতর্কিত ইসলাম প্রচারক জাকির নায়েক নয়াদিল্লিতে ফিরছেন।

মালয়েশীয় সরকারের একটি সূত্র বলছে, কুয়ালালামপুর থেকে ভারতে ফিরছেন জাকির নায়েক।

২০১৬ সালে ঢাকার গুলশানে হলি অার্টিশান রেস্তোরাঁয় হামলায় অংশ নেয়া জঙ্গিরা ভারতের বিতর্কিত এই ইসলাম প্রচারকের বক্তৃতায় উদ্বুদ্ধ হয়েছিল বলে সেইসময় অভিযোগ উঠে।

কুয়ালালামপুর সরকারের একটি সূত্র ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভিকে বলেছে, ‘তিনি (জাকির নায়েক) আজ রাতে দেশ ছাড়বেন। আমার ধারণা, তিনি ভারতের ফ্লাইট ধরবেন। তবে জাকির নায়েক ভারতের ফেরার সংবাদ উড়িয়ে দিয়ে বলেছেন, এটি সম্পূর্ণ মিথ্যা এবং ভিত্তিহীন।

তিনি বলেছেন, ‘অন্যায্য বিচারপ্রক্রিয়া থেকে নিরাপদ বোধ না করা পর্যন্ত আমার ভারতে ফেরার কোনো পরিকল্পনা নেই। যখন দেশের সরকারকে ন্যায় এবং স্বচ্ছ মনে হবে আমি তখনই মাতৃভূমিতে ফিরবো। এদিকে বুধবার জাকির নায়েকের আইনজীবী দাতো শাহরাউদ্দিন আলী বলেছেন, জাকির নায়েককে ভারতে ফেরত পাঠানোর খবরের সত্যতা নেই।

এ ব্যাপারে মালয়েশিয়ার সরকারের পক্ষ থেকে ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে কোনো ধরনের যোগাযোগ করা হয়নি বলে নয়াদিল্লি জানিয়েছে। বিতর্কিত প্রচারক জাকির নায়েক ২০১৬ সালে ভারত ছাড়েন। তখন থেকেই মালয়েশিয়ার পুত্রজায়ায় অবস্থান করছেন তিনি। একই সঙ্গে মালয়েশিয়ায় বসবাসের স্থায়ী অনুমতিও পেয়েছেন তিনি।

মালয়েশিয়ায় জাকির নায়েককে কেন স্থায়ী বসবাসের অনুমতি দেয়া হলো, এনডিটিভির এমন এক প্রশ্নের জবাবে কুয়ালালামপুরের একটি সূত্র বলছে, এ ব্যাপারে বিদায়ী সরকারকে জিজ্ঞাসা করতে হবে। জাকির নায়েককে হস্তান্তর করতে মালয়েশিয়ার সরকারের প্রতি দাবি জানিয়ে আসছে ভারতীয় সন্ত্রাসবিরোধী জাতীয় তদন্ত সংস্থা।

মালয়েশিয়ার সরকারি এক কর্মকর্তা বলেছেন, জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে রেড কর্নার নোটিশ তথা আন্তর্জাতিক গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করতে ব্যর্থ হয়েছে ভারত। ভারতের গোয়েন্দা সংস্থা রিসার্চ অ্যান্ড এনালাইসিস উইংসের (র) সঙ্গে আলোচনায় আমরা বলেছি, দয়া করে আমাদেরকে ইন্টারপোলের গ্রেফতারি পরোয়ানা সংক্রান্ত নোটিশ সরবরাহ করুন, তাহলে আমরা তাকে গ্রেফতার করবো।

কিন্তু তারা সেটি করতে ব্যর্থ হয়েছে। গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়েছে মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের ক্ষমতা থেকে বিদায়ের পর জাকির নায়েকের সেদেশে অবস্থানের নীতিতে পরিবর্তন আনতে যাচ্ছে বর্তমান সরকার। সম্প্রতি মালয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘জাকির নায়েক যদি অপরাধ করে থাকেন তাহলে সেটি স্থানীয় আইনি বিষয়।

দেশের বিভিন্ন ধর্মীয় গোষ্ঠীগুলোর মধ্যে ঘৃণা এবং বিদ্বেষ ছড়ানোর দায়ে গত বছর জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে ভারতের কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা এনআইএ। অভিযোগপত্রে বলা হয়, তিনি বক্তৃতা ও বিবৃতির মাধ্যমে ধর্মীয় বিদ্বেষ ছড়ানোর পাশাপাশি জঙ্গিবাদে উস্কানি দিয়েছেন।

৫২ বছর বয়সী এই চিকিৎসক ইসলাম ধর্মত্যাগ ও সমকামীদের মৃত্যুদণ্ডের সাজা দেয়া উচিত বলে তার বিভিন্ন বক্তৃতায় উল্লেখ করেন। ইউটিউবের একটি ভিডিওতে তাকে বলতে দেখা যায়, ওসামা বিন লাদেন আমেরিকায় যদি সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে থাকেন, তাহলে তিনি বড় সন্ত্রাসী এবং আমি তার সঙ্গে আছি।

গত বছরের জুলাইয়ে ঢাকার গুলশানে হলি আর্টিশান রেস্তোরাঁয় জঙ্গি হামলা হয়। ওই জঙ্গিরা নৃশংস তাণ্ডব চালিয়ে অন্তত ২২ জনকে হত্যা করে। জাকির নায়েকের মালিকানাধীন টেলিভিশন চ্যানেলে জঙ্গিবাদে উস্কানিমূলক বক্তৃতা শুনে উদ্বুদ্ধ হয়ে এই জঙ্গিরা হামলা চালায় বলে অভিযোগ উঠে। পরে বাংলাদেশে পিস টিভির সম্প্রচার বন্ধ করে দেয়া হয়।

(Visited 38 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here