সিলেটে জামায়াতের মেয়র প্রার্থীসহ তিনজনকে শোকজ

0
98

সিলেটের সংবাদ ডটকম: নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মুর্শেদ আহমদ চৌধুরী ও সিলেটের সিভিল সার্জন ডা. হিমাংশু লাল রায় এবং জামায়াত মেয়র প্রার্থীকে শোকজ করেছে সিলেট আঞ্চলিক নির্বাচন কমিশন কার্যালয়।

মঙ্গলবার দুপুরে তাদের নামে শোকজ চিঠি ইস্যু করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. আলীমুজ্জামান।

তিনি বলেন, নির্বাচনী আচরণবিধি অনুযায়ী সরকারি সুবিধাভোগী অতিগুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি এবং কোনো সরকারি কর্মকর্তা বা কর্মচারী নির্বাচন-পূর্ব সময়ে নির্বাচনী এলাকায় প্রচারণায় বা নির্বাচনী কার্যক্রমে অংশ নিতে পারবেন না। এরপরও বিভিন্ন পত্র-পত্রিকার মাধ্যমে জানা যায়, ডা. মুর্শেদ আহমদ চৌধুরী এবং সিভিল সার্জন ডা. হিমাংশু লাল রায় নৌকা প্রতীকের নির্বাচনী প্রচারণায় অংশগ্রহণ করেছেন।

যাতে করে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন হয়েছে। এই কারণে তাদের শোকজ করা হয়েছে। আগামী ৩ দিনের মধ্যে শোকজের জবাব দেয়ার জন্য তাদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে বলেও জানিয়েছেন আলীমুজ্জামান। এদিকে, নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করে শোডাউন করায় সিলেটের জামায়াত সমর্থিত প্রার্থী মহানগর জামায়াতের আমির এহসানুল মাহবুব জুবায়েরকেও শোকজ করেছেন নির্বাচন অফিস।

তাকেও আগামী ৩ দিনের মধ্যে শোকজের জবাব দিতে বলা হয়ছে। প্রসঙ্গত, গত ১৮ জুলাই সিলেটের সিভিল সার্জন হিমাংশু লাল রায়ের সভাপতিত্বে এক সভায় অধ্যক্ষ ডা. মুর্শেদ আহমদসহ বেশ কয়েকজন সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী অংশ নেন। সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সামনে এ আলোচনাসভা হয়।

তারা স্বাস্থ্য বিভাগে সরকারের সাফল্য তুলে ধরার পাশাপাশি নৌকা মার্কায় পক্ষে ভোট চান। পরে তারা নৌকা মার্কায় কামরানকে ভোট দেয়ার জন্য চৌহাট্টা ও ওসমানী মেডিকেল এলাকায় গণসংযোগ ও প্রচারপত্র বিলি করেন।

এ সময় তাদের সঙ্গে ছিলেন- আওয়ামী লীগের নেত্রী নাজরা চৌধুরী, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জুনিয়র কনসালট্যান্ট আজিজুর রহমান, স্বাস্থ্য বিভাগের স্বাস্থ্য সহকারী কল্যাণ সমিতির কেন্দ্রীয় চেয়ারম্যান ও সিভিল সার্জন কার্যালয়ের প্রশাসনিক কর্মকর্তা এম গৌছ আহমদ চৌধুরী।

(Visited 271 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here