সিসিক নির্বাচন : কিছুক্ষন পর ভোটযুদ্ধ শুরু

0
19

সিলেটের সংবাদ ডটকম: কিছুক্ষন পর শুরু হবে সিলেট সিটি নির্বাচনের ভোটযুদ্ধ।এবারই প্রথম দলীয় প্রতীকে এ সিটিতে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

এতে মেয়র পদে আওয়ামী লীগ-বিএনপির প্রার্থীসহ ৬জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত নগরের ২৭ওয়ার্ডের ১৩৪ ভোটকেন্দ্রের ৯২৬টি কক্ষে বিরতিহীনভাবে ভোটগ্রহণ চলবে।

সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন করতে এরইমধ্যে সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। সিলেটের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও সিসিক নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার মো. আলিমুজ্জামান বলেন, ‘অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে।

নগরীর নিরাপত্তায় পর্যাপ্ত পুলিশ, বিজিবি ও র্যা বসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা রয়েছেন। নির্বাচন পর্যবেক্ষণে ইসির নিজস্ব কর্মকর্তারাও রয়েছেন। তিনি জানান, ‘রোববার বিকেলেই সবকটি ভোটকেন্দ্রে স্বচ্ছ ব্যালট বাক্স, ব্যালট পেপার, সিল, কালিসসহ নির্বাচন সামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।

শনিবার থেকে ১৪ প্লাটুন বিজিবি মাঠে নামানো হয়েছে। ভোটকেন্দ্রের ভিতরে ও বাহিরে মিলিয়ে পুলিশ, এপিবিএন, আনসার-ভিডিপিসহ প্রায় ৫ হাজার আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য দায়িত্ব পালন করবেন। পাশাপাশি থাকবে প্রতিটি ওয়ার্ডে র্যা বের টহল টিম দায়িত্ব পালন করবে। এছাড়া তিন ওয়ার্ডে একটি করে ৯টি স্ট্রাইকিং ফোর্স টিম মাঠে থাকবে।

এ টিমে ১০ জন করে থাকবে। নির্বাচনের আইনশৃঙ্খলা রক্ষা ও সিটি নির্বাচনের আচরণ বিধিমালা প্রতিপালনের লক্ষ্যে ১৮ জন নির্বাহী ও জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটকে মাঠে নামানো হয়েছে। প্রত্যেক ম্যাজিস্ট্রেটের সঙ্গে একটি করে পুলিশের টিম থাকবে। নির্বাচনে মেয়র এবং কাউন্সিলর, সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর মিলিয়ে মোট ১৯৫ জন প্রার্থী নির্বাচনের চূড়ান্ত লড়াইয়ে মাঠে রয়েছেন।

মেয়র প্রার্থী ৬ জন, ২৭টি সাধারণ ওয়ার্ডে ১২৭ জন কাউন্সিলর এবং নয়টি সংরক্ষিত আসনে ৬২ জন নারী কাউন্সিলর প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। সিলেট সিটি নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগ-বিএনপির প্রার্থীসহ ছয় প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

তারা হচ্ছেন- আওয়ামী লীগের ‘নৌকা’ প্রতীকের মেয়র প্রার্থী বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, বিএনপি নেতৃত্বাধীন বিশ দলীয় জোট সমর্থিত ‘ধানের শীষ’ প্রতীকের প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী, নাগরিক ফোরামের ব্যানারে ‘দেয়াল ঘড়ি’ প্রতীকে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী নগর জামায়াতের আমীর এডভোকেট এহসানুল মাহবুব জুবায়ের, ইসলামী আন্দোলন মনোনীত ‘হাতপাখা’ প্রতীকের প্রার্থী ডা. মোয়াজ্জেম হোসেন, সিপিবি-বাসদের ‘মই’ প্রতীকের প্রার্থী আবু জাফর ও স্বতন্ত্র ‘হরিণ’ প্রতীকের প্রার্থী এহসানুল হক তাহের।

তবে নির্বাচনে মূল লড়াই হবে আওয়ামী লীগের বদর উদ্দিন আহমদ কামরান এবং বিএনপির আরিফুল হক চৌধুরীর মধ্যে। এদিকে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সিলেট নগরী উৎসবের নগরীতে পরিনত হলেও সুষ্ঠু ভোট নিয়েও রয়েছে সাধারণ ভোটারদের মাঝে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা।

একই সাথে কে হচ্ছেন নগর পিতা- এনিয়ে গোটা শহরে চলছে নানা জল্পনা-কল্পনা। তাদের জল্পনার অবসান ঘটাতে অপেক্ষা করতে হবে কয়েক ঘন্টা। সোমবার রাতেই জানা যাবে কে হচ্ছেন নতুন নগর পিতা। একই সাথে অবসান হবে উদ্বেগ-উৎকন্ঠারও।

সিলেট সিটিতে মোট ভোটার ৩ লক্ষ ২১ হাজার ৭৩২ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লক্ষ ৭১ হাজার ৪৪৪ জন ও মহিলা ভোটার হলেন ১ লক্ষ ৫০ হাজার ২৮৮ জন। নগরীর ২৭টি ওয়ার্ডের মধ্যে সর্বোচ্চ ভোটার হলেন ৭নং ওয়ার্ডে। এ ওয়ার্ডের মোট ভোটার ১৮ হাজার ৫৭৩ জন। সব চেয়ে কম ৬ হাজার ৭৫৪ জন ভোটার হলেন ২নং ওয়ার্ডে।

এই ওয়ার্ডে পুরুষ ভোটার ৩ হাজার ৭০৬ জন ও মহিলা ভোটার হলেন ৩ হাজার ৪৮ জন। সিলেট আঞ্চলিক নির্বাচনি কার্যালয়ের তথ্য প্রদানকারী কর্মকর্তা প্রলয় কুমার সাহা জানান,‘ভোট গ্রহণের জন্য ১৩৪ জন প্রিজাইডিং অফিসার, ৯২৬ জন সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার এবং ১ হাজার ৮৫২ জন পোলিং এজেন্ট দায়িত্ব পালন করবেন।

সিলেট সিটি নির্বাচনে দুটি ভোটকেন্দ্রে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহার হচ্ছে।সিসিকের ৪নং ওয়ার্ডের আম্বরখানা গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ ও আম্বরখানা সরকারি কলোনি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের ৪ হাজার ১৯৬জন ভোটার ইভিএমে ভোট দেবেন।

(Visited 149 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here